×
ব্রেকিং নিউজ :
জাপান কোভিড-১৯ মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৩২৯ মিলিয়ন ডলার দিবে : শিনজো আবে নগরবাসীর প্রত্যাশা পূরণে প্রথম দিন থেকে কাজ করেছি : বিদায়ী মেয়র নাছির চসিকের নতুন প্রশাসক সুজন কাল দায়িত্ব নেবেন সেনা ও পুলিশ প্রধানের যৌথ সংবাদ সম্মেলন : সিনহা হত্যাকান্ড দুই বাহিনীর সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না কামাল দেশকে অনেক কিছু দিতে পারতো : প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন দূরদর্শী ও গভীর চিন্তাবোধের অধিকারী: সেতুমন্ত্রী শেখ কামালের সমাধিতে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদন শেখ কামালের জন্মদিন একইসাথে আনন্দ ও বেদনার স্মৃতিবাহী : তথ্যমন্ত্রী ৪ সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর সংকেত কৃষি ও অকৃষি উভয় খাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসার আহবান কৃষিমন্ত্রীর
  • আপডেট টাইম : 30/07/2020 07:46 PM
  • 32 বার পঠিত

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি বলেছেন, “বর্তমান সরকারের সময়ে যথার্থ উদ্যোগ নেয়ার ফলেই দেশের কোভিড হাসপাতালগুলোতে এখন ৬০ ভাগ শয্যা খালি পড়ে আছে।
তিনি বলেন, কোভিড ডেডিকেটেড অর্ধেক আইসিইউ বেডে কোন রোগী নেই। শুরুতে পরিস্থিতি বুঝতে কিছুটা সময় লাগলেও এখন দেশের চিকিৎসা খাত কোভিড-১৯ চিকিৎসায় সঠিক অবস্থানেই রয়েছে।”
আজ সকালে সচিবালয়ের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সাথে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা কম থাকা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, “কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সরকার দ্রুত কিছু উদ্যোগ নিতে সক্ষম হয়েছে। প্রথম দিকে কেবলমাত্র ঢাকা মেডিকেল কলেজে সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থা চালু ছিল। এখন জেলা শহরেও সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থা চালু করাসহ প্রায় ৭০টি হাসপাতাল সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আমাদের টেলি মেডিসিন ব্যবস্থার মাধ্যমে শত শত চিকিৎসক অনলাইনে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। পাশাপাশি, বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী নতুন কিছু কার্যকরী চিকিৎসা সেবা কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোতে দেয়া হচ্ছে। এর ফলে, দেশে ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার কমতে শুরু করেছে।”
কোভিড পরীক্ষার সংখ্যা কমে যাচ্ছে এমন এক প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা করাতে মানুষের অনীহা, বন্যা দুর্যোগ এবং যত্রতত্র লক্ষণবিহীন লোকদের নমুনা পরীক্ষা না করানোর ফলে এ হার কিছুটা কমে থাকতে পারে। শিগগির ৩০ হাজার নার্স নিয়োগ করা হবে বলেও সভায় তিনি উল্লেখ করেন।
উল্লেখ্য, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলী নূর-এর সভাপতিত্বে সভায় ৫টি দপ্তরের সাথে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। স্বাক্ষরকারী দপ্তরগুলো হচ্ছে- পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, নিপোর্ট, নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাইডলাইন অনুযায়ী স্বচ্ছতা ও দক্ষতার সাথে কাজ করার জন্য দপ্তর প্রধানদের প্রতি আহ্বান জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...