Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে দলীয় নেতা কর্মীদের প্রতি আহবান প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রদায়িক সংঘাতের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন টেকসই উত্তরণ ত্বরান্বিত করতে উৎপাদন সক্ষমতা বাড়াতে হবে : রাবাব ফাতিমা বাল্য বিয়ে রোধে ইউনিয়ন পর্যায়ে সচেতনতামূলক প্রচারণার সুপারিশ স্থায়ী কমিটির সভায় জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তা দেবে সুইডেন : রাষ্ট্রদূত লন্ডনে অসুস্থ গাফফার চৌধুরীকে ফোন করে খোঁজ-খবর নিলেন রাষ্ট্রপতি বিএনপি নেতারা নিজেদের অক্ষমতা আড়াল করতে পুরনো রেকর্ড বাজিয়ে যাচ্ছে : ওবায়দুল কাদের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হবে সন্ত্রাসমুক্ত ও প্রতিযোগিতামূলক : সিইসি হিন্দুদের ওপর হামলা দেশের চেতনার বেদীমূলে হামলা : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা দিতে বারডেম হাসপাতালের সাথে সমঝোতা নবায়ন
  • আপডেট টাইম : 12/10/2021 09:56 PM
  • 39 বার পঠিত

রংপুরের কাউনিয়ায় রেলওয়ের টিকিট বিক্রির প্রায় ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের দায়ে বুকিং মাস্টার মিশুক আল মামুনকে দুদুক গ্রেফতার করে জেলে পাঠিয়েছে। একই ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলায় কাউনিয়া রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার বাবু আল রশিদকে সাময়িক বরখাস্ত হয়েছে।
লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজার দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিম জোনের অধিনে কাউনিয়া রেলওয়ে স্টেশনে গত ৬ মাসে লালমনিরহাট ও রংপুর এক্সপ্রেস আন্তঃনগর ট্রেনসহ ১৪টি ট্রেনের টিকিট বিক্রির টাকা রেলওয়ে কোষাগারে জমা হয়নি। ঘটনাটি গত ২৪ সেপ্টেম্বর রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজারের নজরে আসে। গত ৪ অক্টোবর কাউনিয়া রেলওয়ের প্রধান টিকিট বুকিং ম্যানেজার মিশুক আল মামুনকে কার্যালয়ে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদে টিকিট বিক্রির প্রায় ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনাটি নিশ্চিত হয়।
এ ঘটনায় লালমনিরহাট রেলওয়ে জুনিয়র ট্রাফিক ইন্সেপেক্টর ছহির উদ্দিন বাদী হয়ে দুদকে মামলা করা হয়। ওই মামলায় তাকে আটক করা হয়। বর্তমানে সে রংপুর কারাগারে জেল হাজতে রয়েছে। একই ঘটনায় কাউনিয়া রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার বাবু আল রশিদকে কর্তব্যে অবহেলার দায়ে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার সম্পৃক্ততা আছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
বুকিং মাস্টার মিশুক আল মামুনের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আত্মসাতের অর্থ দিয়ে সে আইপিএল-এর ক্রিকেট খেলা দেখে জুয়ায় (বাজি) হেরেছে।
লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজার শাহ সুফি নুর মোহাম্মদ জানান, গত ৬ মাস ধরে লালমনিরহাট ও রংপুর এক্সপ্রেস আন্তঃনগরসহ বিভিন্ন রুটের ১৪টি ট্রেনের টিকিট বিক্রির কোনো টাকা রেলওয়ে কোষাগারে জমা হয়নি। গত ১০ আগস্ট হতে ১ অক্টোবর পর্যন্ত রেলওয়ের আয়ের ৩৩ লাখ ৮৫ হাজার ৫০০ টাকার কোন হিসেব নেই। মিশুক ১ মাস ২০দিন টিকেট বিক্রির টাকা কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাত করে। আটক বুকিং সহকারী মিশুক কুড়িগ্রাম জেলার চর বজরা গ্রামের মনছুর কাদেরের পুত্র।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...