Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী করতে বিদেশে নতুন বাজার অনুসন্ধানের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারীরা জাতির শত্রু : রেজাউল করিম আবারও পেছালো এসকে সিনহার মামলার রায় উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপনের জন্য জাতিসংঘে নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্স নড়াইলে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের প্রতিবাদে মানববন্ধন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) পালিত সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ার আহবান শিক্ষামন্ত্রীর আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভা আগামীকাল কাল পূর্বাচলে নবনির্মিত প্রদর্শনী কেন্দ্র উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ধর্মকে রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য ব্যবহারকারীরাই বিভাজন তৈরি করতে চায় : ওবায়দুল কাদের
  • আপডেট টাইম : 11/10/2021 06:04 PM
  • 35 বার পঠিত

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে নৌকাডুবিতে দুই শিশুসহ ১৮ জনের মৃত্যুর ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা দিতে হাইকোর্ট বিভাগের দেয়া রায় স্থগিত করেছে আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্ট।
সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের  বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের চেম্বার কোর্ট এ আদেশ দেন। 
রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম আদালতের আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আজ বলেন, ‘গত ২৬ আগস্ট চেম্বার আদালত ক্ষতিপূরণ দেয়ার রায়টি স্থগিত করেছে। হাইকোর্ট বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ হলে আমরা পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করব।’
এর আগে গত ৩০ জুন চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে নৌকা ডুবিতে দুই শিশুসহ ১৮ জন নিহতের ঘটনায় প্রত্যেকের পরিবারকে ১৫  লাখ করে মোট ২ কোটি ৭০ লাখ দিতে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট বিভাগ। দুই মাসের মধ্যে এ টাকা পরিশোধ করতে বলা হয়। দুই মাসের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হলে সুদসহ এই টাকা পরিশোধ করতে হবে বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়।
বিআইডব্লিউটিসি ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষকে সন্দ্বীপ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে ১৮ পরিবারকে এই টাকা প্রদান করার কথা বলা হয়। রায়ে নৌকা ডুবির ঘটনায় বিআইডব্লিউটিসি ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের অবহেলাকেও দায়ী করা হয়। পরে এই আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয়।
২০১৭ সালের ২ এপ্রিল সন্ধ্যায় বঙ্গোপসাগরের সন্দ্বীপ চ্যানেলে সি-ট্রাক থেকে যাত্রী নামিয়ে ১৫০ গজ দূরে গুপ্তছড়া ঘাটে পৌঁছে দেয়ার সময় যাত্রীবাহী নৌকাটি উল্টে যায়। দুর্ঘটনার এক ঘন্টার মধ্যে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ৩০ জনকে উদ্ধার করা হয়। সি-ট্রাকে করে কয়েকশ যাত্রী চট্টগ্রামের কুমিরা ঘাট থেকে সন্দ্বীপের গুপ্তছড়া ঘাটে যাচ্ছিলেন। সি-ট্রাক ঘাটে ভিড়তে না পারায় ১৫০ গজ দূরে নোঙর করে নৌকার মাধ্যমে যাত্রীদের পারাপার করা হয়। ওই ঘটনায় দুই শিশুসহ ১৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সন্দ্বীপের বাসিন্দা মোহাম্মদ জহরুল ইসলাম হাইকোর্ট বিভাগে রিট দায়ের করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...