×
ব্রেকিং নিউজ :
নীলফামারীর ডিমলায় বুড়ি তিস্তার বাঁধ ভেঙ্গে শতাধিক পরিবার পানিবন্দী নাটোরে মেডিকেল কলেজে সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্কুল ব্যাগ ও স্প্রে মেশিন বিতরণ উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ শালবন দিনাজপুরে প্রাকৃতিক ভারসাম্য ধরে রেখেছে রামাফোসা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট পুন:নির্বাচিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি কমলো, খুলছে ২৬ জুন ভারতের সঙ্গে বৈরি সম্পর্কের জেরে বিএনপি দেশের ক্ষতি করেছে : ওবায়দুল কাদের প্রস্তাবিত বাজেটে জনগণের জীবনযাত্রার উন্নয়নে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে মিয়ানমার থেকে গুলি আসলে পাল্টা গুলি চালানো হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেটে বন্যার কারণে শাবিপ্রবি কর্তৃপক্ষের নতুন নির্দেশনা
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০৫-২২
  • ৫৬৯৯৩ বার পঠিত
  • নিজস্ব প্রতিবেদক
যুক্তরাজ্যের ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি অব সুফি স্কলার্স ‘দি এসেন্স অব তাসাউফ’ গ্রন্থের জন্য শাহ্সুফি সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভান্ডারীকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করেছে। 
এই গ্রন্থে তিনি কাদিরিয়া মাইজভান্ডারীয়া তরিকার ঐতিহ্য, একজন মানুষের মহামহিম, সর্বশক্তিমান আল্লাহর পথে যাত্রা, আধ্যাতিœক পথের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নানা দিক, তাসাউফের ঐশ্বর্য অর্জনের জন্য একজন প্রকৃত সুফি শেইখের সান্নিধ্যে গমনের গুরুত্ব অত্যন্ত সফলতার সাথে সহজভাবে উপস্থাপন করেছেন। 
 ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদানের পর একাডেমির শীর্ষ স্কলারগণ এবং সম্মেলনের স্কলারবৃন্দ বুদ্ধিজীবীগণ ও গবেষকগণ তাকে অভিনন্দন জানান। 
এর পাশাপাশি মরক্কোর শেইখ মা আল আইনিন ফাউন্ডেশন ফর সায়েন্স এন্ড হেরিটেজ, মিশরের অর্গানাইজেশন ফর টলারেন্স এন্ড পিস এবং যুক্তরাজ্যের একাডেম অব সুফি স্কলার্স তাসাউফের বাণী প্রচার প্রসারে তার বহুমুখী অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিশেষ সম্মাননা স্মারক প্রদান করেছে।
মরক্কোর ঐতিহাসিক শহর গুয়েলমিমে, শাহ্জাদা সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভান্ডারী গত ১৭ মে থেকে দশম আন্তর্জাতিক সুফিবাদ সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করেছেন। তার সফরসঙ্গী হিসেবে সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন, মইনীয়া যুব ফোরামের এক্সিকিউটিভ প্রেসিডেন্ট, সাইয়্যিদ মাশুক-এ-মইনুদ্দীন আল হাসানী। 
এ সম্মেলনের আলোচনার মূল বিষয় ছিল ‘আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে সুফি তরিকার প্রভাব এবং নিজ নিজ দেশকে গড়তে, সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে সুফিদের করণীয়।’ 
সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভান্ডারী উল্লিখিত বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি, মরক্কোর স্বাধীনতার অগ্রনায়ক, শেইখ মা আল আইনিনের মহৎ বীরত্ব ও আত্মত্যাগকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি বিশ্বের সুফিদেরকে তাদের খানকাহ্ শরীফ থেকে বেরিয়ে এসে সামাজিক ও নাগরিক সমস্যাগুলো সমাধানে কার্যকরী অবদান রাখার আহ্বান জানান। 
মাইজভান্ডার শরীফের সাজ্জাদানশিন অন্যান্য সুফি শেইখদের সাথে ১৯ মে ‘আধুনিক যুগে তাসাউফের গুরুত্ব’ শীর্ষক সাধারণ ডিবেটে অংশগ্রহণ করেন। 
প্রায় ১০ দিনের মরক্কো সফর শেষে আগামী ২৭ মে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
#
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat