Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
দিনাজপুর, নাটোর ও কুমিল্লায় শীতবস্ত্র বিতরণ চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন ভাল হয়েছে : ইসি সচিব উল্লাপাড়ায় রক্তাক্ত সলঙ্গা বিদ্রোহ ও মাওলানা তর্কবাগীশ বিএনপির অভ্যাস হচ্ছে ‘নাচতে না জানলে উঠোন বাঁকা’ : তথ্যমন্ত্রী কোভিড টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করুন : প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে : ওবায়দুল কাদের দেশের সকল নাগরিককেই পেনশনের আওতায় আনার কথা ভাবছে সরকার : পরিকল্পনামন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি বিষয়ে মোমেন-কেরির ফোনালাপ দেশে ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১৭, সুুস্থ ৫০৯ জন জাতিসংঘের শান্তি প্রচেষ্টার প্রতি বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত
  • আপডেট টাইম : 07/01/2021 09:08 PM
  • 47 বার পঠিত

গ্রাহক ভোগান্তি কমাতে ও বাণিজ্য সহজ করতে সোনালী ব্যাংকের সঙ্গে আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরের (সিসিআইএন্ডই) একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান দু’টির মধ্যে ই-পেমেন্ট সেবা চালু হলো। ফলে গ্রাহকরা সনাতন ধারার ব্যাংকে গিয়ে ম্যানুয়াল পেমেন্টের ঝামেলা থেকে মুক্তি পাবে।এতে তাদের সময়, যাতায়াত ও খরচ সাশ্রয় হবে। ঘরে বসেই পেমেন্ট করা যাবে।
বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ই-পেমেন্ট সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এর আগে আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরের সাথে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের ‘সোনালী পেমেন্ট গেটওয়ে’ শীর্ষক সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, সিসিআইএন্ডই গত জুন থেকে ডিজিটাল কার্যক্রম শুরু করেছে। আজ এ কার্যক্রমের সোনালী অধ্যায় শুরু হলো। আমরা চাই সকলে ঘরে বসে সব রকমের সুবিধা উপভোগ করুক। করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ইতিবাচক দিক হলো আমরা ডিজিটাল কার্যক্রম ভালভাবে শুরু করতে পেরেছি।
তিনি বলেন, সিসিআইএন্ডইতে অনলাইন ব্যাংকিং সুবিধা চালু হওয়ায় ব্যবসা সহজীকরণ কার্যক্রম আরও এগিয়ে যাবে। মানুষের সময় বাঁচবে,ঘরে বসে সেবা পাবে ও ভোগান্তি কমবে। এই ধারাবাহিকতায় সকল ব্যাংক এই পথে এগিয়ে আসবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
টিপু মুনশি আরও বলেন, আমরা ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর পাশাপাশি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন করছি। এই দুটো বড় ঘটনা একসাথে দেখছি এবার আমরা। সেজন্য এই বছরটা স্মরণীয় করে রাখতে বিভিন্নভাবে কাজ চলছে। সবাই জানেন ১২ বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং সেই লক্ষ্যে কার্যক্রম শুরু হয়।
তিনি বলেন, আর সেই ধারাবাহিকতায় দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরিত হচ্ছে। আমরা শতভাগ অর্জন করেছি সেটা বলছি না। তবে সে লক্ষ্যে আমরা এগোচ্ছি।
তিনি বলেন, করোনাকালে আমাদের অনেক সমস্যা হয়েছে অনেক কিছু বাধাগ্রস্ত হয়েছে। তবে একটা বিষয়ে অনেক উন্নতি হয়েছে সেটা হলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের। এই করোনায় এই সুযোগ তৈরি হয়েছে। আমরা আগে কখনো চিন্তা করিনি বাড়িতে বসে অনলাইনে পেঁয়াজ কিনতে পারবো। এটা শুভ লক্ষণ।
অনুষ্ঠানে বাণিজ্য সচিব ড.জাফর উদ্দিন বলেন, ২০২৪ সালে আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হবো। এজন্য ইজ অব ডুয়িং বিজনেস গুরুত্বপূর্ণ। অনলাইন ব্যাংকিং কার্যক্রম ব্যবসায়ীদের কাজ আরও সহজ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান প্রধান বলেন,আজ সিসিআইএন্ডই এবং সোনালী ব্যাংকের এমওইউ স্বাক্ষরের মাধ্যমে সোনালী পেমেন্ট গেটওয়ে মাধ্যমে অনলাইনে ফি বা চার্জ আদায় শুরু হলো। ই-পেমেন্ট চালুর ফলে গ্রাহকরা ম্যানুয়্যাল পেমেন্ট এর ঝামেলা হতে মুক্তি পাবেন। এতে তাদের সময়, যাতায়াত ও খরচ সাশ্রয় হবে। অন্যদিকে সিসিআইএন্ডই’র কর্মকর্তাগণ রিয়েল টাইমে ই-চালানের তথ্য জানতে পারবেন এবং আমদানি ও রপ্তানি সংক্রান্ত সেবাসমুহ আবেদনের সাথে সাথেই অনুমোদন করার প্রক্রিয়া শুরু করা যাবে। এর ফলে ইজ অব ডুয়িং বিজনেস সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান আরও সুসংহত হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এই ই-পেমেন্ট সুবিধার কারণে পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে গ্রাহক ক্যাশ অন কাউন্টার (ব্যাংক ব্রাঞ্চ), অনলাইন একাউন্ট ট্রান্সফার, মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস (বিকাশ, রকেট, নগদ, ইউক্যাশ ইত্যাদি), ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড (ভিসা, মাস্টার, এমেক্স, নেক্সাস ইত্যাদি) সহ অন্যান্য পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করে অনলাইনে পেমেন্ট করতে পারবেন।
আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরের পক্ষে প্রধান নিয়ন্ত্রক সোলেমান খান ও সোনালী ব্যাংকের চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার সুভাষ চন্দ দাস এমওইউ স্বাক্ষর করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...