×
ব্রেকিং নিউজ :
পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সৌদি ও মিশরের রাষ্ট্রদূত এবং অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনারের সাক্ষাত ফেনীতে অমর একুশে বইমেলা শুরু ঝিনাইদহে ১৫০০ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান ভোলায় ২১০ জন নারীর মধ্যে ল্যাপটপ বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে ট্রাক্টর উল্টে দুইজন নিহত বাংলাদেশ ভাষা আন্দোলনের চেতনায় এগিয়ে চলছে : প্রধানমন্ত্রী বিএনপি রোজা-রমজান-ঈদ কোনোটাই মানে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করবে: ওবায়দুল কাদের রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের স্থানীয় ক্রয় ভ্যাটের আওতার বাইরে রাখার প্রস্তাব আমমোক্তারনামার অপব্যবহার প্রতিরোধে ব্যবস্থার নেয়ার নির্দেশ ভূমিমন্ত্রীর
  • প্রকাশিত : ২০২৩-১২-০৫
  • ৪৫৫৬৮০৮ বার পঠিত
  • নিজস্ব প্রতিবেদক
কপ-২৮ জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানকারী দেশগুলোর প্রতিনিধিরা তাদের জন্য বিধিবিধান তৈরি হওয়ার আগে বিতর্কিত কার্বন ক্রেডিট হাইপিং ঘোষণায় পরিবেশবাদী দলগুলো ব্যাপক আকারে ‘গ্রিন ওয়াশিং’-এর আশঙ্কা করছে।
ক্রেডিটগুলোর পেছনের ধারণাটি সম্প্রতি একটি বড় আঘাত নিয়েছে কারণ, বৈজ্ঞানিক গবেষণায় বারবার দেখানো হয়েছে, স্কিমগুলোর অধীনে কার্বন নির্গমন হ্রাসের দাবিগুলো প্রায়শই ব্যাপকভাবে অত্যধিক মূল্যায়ন করা হয়।
কার্বন ক্রেডিট কর্পোরেশনগুলোকে অনুমতি দেয় বা কিছু শর্তের অধীনে দেশগুলোকে তাদের গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন করতে।
একটি ক্রেডিট বায়ুমন্ডল থেকে এক টন কার্বন ডাই অক্সাইড হ্রাস বা অপসারণের সমান প্রায়শই উন্নয়নশীল দেশগুলোতে বন উজাড়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মতো বিষয়গুলোতে ফোকাস করে প্রকল্পগুলো।
বিজ্ঞানীরা জোর দেন যে, দূষণ চালিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও অফসেটিং পাসপোর্ট হিসেবে ব্যবহার করা উচিত নয় গ্লোবাল উষ্ণতার লক্ষ্য পূরণের জন্য কার্বন নির্গমন এই দশকে প্রায় অর্ধেকে কমতে হবে। মার্কিন জলবায়ু বিষয়ক দূত জন কেরি রোববার ঘোষণা করেছেন, একটি ‘সাহসী নতুন ধারণা হিসেবে উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য তার দেশের এনার্জি ট্রানজিশন অ্যাক্সিলারেটর একটি সংখ্যার মধ্যে একটি।
যাই হোক, পরিবেশবাদী গোষ্ঠীগুলো দ্রুত সংশয় প্রকাশ করে,অনুরূপ পরিকল্পনাগুলোর অতীত ব্যর্থতার দিকে ইঙ্গিত করে।
এই উদ্যোগ মার্কিন সরকার রকফেলার ফাউন্ডেশন এবং বিলিয়নেয়ার জেফ বেজোসের আর্থ ফান্ডের মধ্যে একটি অংশীদারিত। উন্নয়নশীল দেশগুলোকে নোংরা থেকে পরিষ্কার জ্বালানীতে স্থানান্তরিত করার লক্ষ্য।
এই প্রকল্পের অধীনে কোম্পানিগুলো এবং সম্ভাব্য দেশগুলো এমন প্রকল্পগুলো থেকে কার্বন নির্গমনের জন্য ক্রেডিট কিনতে সক্ষম হবে যা পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি বৃদ্ধি, বৈদ্যুতিক ট্রান্সমিশন লাইন নির্মাণ বা ‘অবসরপ্রাপ্ত’ কয়লা প্ল্যান্টের মতো কাজ করে। ‘ধোঁয়া ও আয়না’ আমাজন, ব্যাংক অফ আমেরিকা, মাস্টারকার্ড, ম্যাকডোনাল্ডস, মরগান স্ট্যানলি, পেপসিকো এবং ওয়ালমার্ট হল কিছু মার্কিন কর্পোরেট জায়ান্ট যা চিলি, ডোমিনিকান রিপাবলিক এবং নাইজেরিয়াতে এসব পাইলট প্রকল্পগুলোতে অংশ নেবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
#
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat